যেসব কথা শুনলে মে’য়েরা অ’ল্প’তেই প্রেমে পড়ে যায়!

বর্তমান সময়ে দেখা যায়, অধিকাংশ ছেলে-মে’য়েরা নিজেদেরকে প্রেমের সম্প’র্কে জড়িয়ে থাকেন। আর এই সম্প’র্কে জড়ানোর পরে মে’য়েরা তার প্রে’মিকের কাছ থেকে অনেক কিছুই শুনতে চায়। কিন্তু বেশিরভাগ ছেলেরা বা প্রে’মিকরা এ বি’ষয়টি একদমই বুঝতে চায় না।

অথচ এই বি’ষয়গুলোর দিকে যদি প্রে’মিকরা একটু খেয়াল করে তাহলে তাদের এ মধুর সম্প’র্ককে আরো গভীর ও মজবুত করতে পারে।চলুন জেনে নেয়া যাক, আপনার কাছ থেকে কোন কথাগুলো শুনলে আপনার প্রে’মিকা বেশি খুশি হয়-আমি তোমাকে ভালোবাসি

প্রে’মিকাকে আপনি যত বার বলবেন ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’ এই কথা শোনার পর মে’য়েরা তত বেশি বার আপনার প্রেমে পড়বে। আর হ্যাঁ প্রত্যেক প্রে’মিকরা মনে রাখবেন, রাগের মুহূর্ত হোক কিংবা বি’পদের সময় হোক- এই একটি কথাই মে’য়েদের মুখে হাসি আনতে পারে।

তোমাকে খুব সুন্দর লাগছেমে’য়েরা বরাবরই ছেলেদের কাছ থেকে প্রশংসা শুনতে খুবই পছন্দ করে। যখন আপনি তার একটু প্রসংশা করবেন তখন সে ভীষণ খুশি হবে। আর আপনার প্রতি তার ভালোবাসার পরিধিও বৃ’দ্ধি পাবে।তোমাকে পেয়ে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি

আপনি যদি কখনো এমন কথা বলেন, সেসময় একটু লক্ষ করে দেখবেন যে, মে’য়েটি তখন নতুন করে আবারো আপনার প্রেমে পড়বে। তার অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে নতুন করে ভালোবাসার অঙ্কুর জ’ন্মাবে। কারণ আপনার জীবনে তার গুরুত্ব কতটুকু এটা জানা তার জন্য খুবই জরুরি।

তুমিই আমার জীবনে একমাত্র মে’য়ে, তোমাকে পেয়ে আমি ধ’ন্যএই কথাটি অনেকে শুধু মে’য়েদের খুশি করার জন্য বলে আবার অনেকেই সত্যিকার অর্থেই বলে থাকেন। কিন্তু, আপনি জানেন কি এই কথা শোনার পর মে’য়েরা নিজেকে আরো অনেক অনেক বেশি ‘বিশেষ’ মনে করেন। আর এর ফল স্বরুপ সে সম্প’র্ক প্লাস আপনাকে আরো বেশি করে আকড়ে ধরবে।

কিছু করার আগে মে’য়েদের কাছে শোনা, তোমার কাছে কী মনে হয়?মে’য়েরা সব সময় চায় ছেলেরা কাজ থেকে শুরু করে যাবতীয় কিছু সে যাই করুক না কেন, সেটা করার আগে যেন তাকে বলে করুক। তাই প্রিয়জনের কাছে অযথা না লুকিয়ে তাকে বলেই করার চেষ্টা করুন। এতে করে দেখবেন আপনাদের সম্প’র্ক আরো মজবুত হবে।

চলো শপিংয়ে যাইএই কথাটি মে’য়েদেরকে বেশি খুশি করে। তাই আপনি চাইলে এই এক কথা দিয়েই আপনার প্রে’মিকাকে খুশি করতে পারেন। এবং খুশি রাখতে পারেন।তুমি খুব ভালো মা হতে পারবে

এমন কথা শুনলে মে’য়েরা নিজেকে পরিপূর্ণ মনে করে। মে’য়েরা নিজের প্রে’মিকের কাছ থেকে এমন কথা শোনার পর মানে আপনাকে সে শ্রদ্ধা করবে। আপনি অবশ্যই মনে রাখবেন, এই শ্রদ্ধাবোধ আপনাদের সম্প’র্কে বিশ্বাস টিকিয়ে রাখবে।
আরো পড়ুন মাসুদ রানা’য় শ্রদ্ধা কাপুরআশিকি ২’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে পুরোদমে বলিউড যাত্রা শুরু।

পুরুষের যৌ’ন শ`ক্তি বৃদ্ধির শতভাগ কার্যকর প্রাকৃতিক উপায় জেনে রাখুন

সাধারণত খাবারে ভিটামিন এবং মিনারেলের ভারসাম্য ঠিক থাকলে শরীরে এন্ড্রোক্রাইন সিস্টেম সক্রিয় থাকে।আর তা শরীরে এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরনের তৈরি

হওয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এস্ট্রোজেন এবং পারফরমেন্সের জন্য জরুরি।তাই যৌ’ন শ‌ক্তি শুধুমাত্র প্রাকৃ‌তিকভা‌বেই পাওয়া সম্ভব। আজকাল অনলাই‌নে, প‌থে-ঘা‌টে,

হাট-বাজা‌রে যে গল্প বা ঔষধ পাওয়া যায় সেইগুলির বৈজ্ঞানিক ভিত্তি দেখে তবেই কেন উচিত। ভেজালময় জীবনে কি খেলে বাড়বে যৌ’ন কামনা আসুন একবার চোখ বুলিয়ে দেখে নেই।

খেজুর
প্র‌তি‌দিন প্রাতরাশ খাওয়ার সময় খেজুর খাওয়ার অভ্যাস গ‌ড়ে তুলুন। মাখনের সাথে খেজুর মিলিয়ে খেলে যৌ’নশক্তি বৃদ্ধি পায়, সেই সা‌থে শরীরের গঠন বাড়ে ও কন্ঠস্বর

পরিস্কার হয়। খেজুর চুষলে তেষ্টা কম হয়।খেজুর দেহের শিরা কোমল করে এবং প্রসব ও শিরায় খিচুনির ফলে “আকটান পেইন” নামক যে ব্যাথা সৃষ্টি হয় তা দূর করে। মহিলাদের মধ্যে যৌ’ন উত্তাপ সৃষ্টি করে।

মধু
মাখন ও মধু একত্রে মিশ্রণ করে খেলে Pleurisy তথা বক্ষাবরক ঝিল্লি প্রদাহ রোগের উপকার হয় এবং শরীর মোটা করে। খাঁটি মধুতে পাওয়া‌রের সকল উপাদান বিদ্যমান।

এছাড়াও সকালে খালি পেটে জিহ্বা দ্বারা মধু চেটে খেলে কফ দূর হয়, পাকস্থলী পরিস্কার হয়, দেহের অতিরিক্ত দূষিত পদার্থ বের হয়, গ্রন্থ খুলে দেয়, পাকস্থলী স্বাভাবিক হয়ে যায়,

মস্তিস্ক শক্তি লাভ করে, স্বাভাবিক তাপে শক্তি আসে, রতি শক্তি বৃদ্ধি হয়, মূত্রথলির পাথর দূর করে, প্রস্রাব স্বাভাবিক হয়, গ্যাস নির্গত হয় ও ক্ষুধা বাড়ায়। প্যারালাইসিসের জন্যও মধু উপকারি।

কলিজা
যৌ’ন জীবনে খাদ্য হিসেবে কলিজার গুরুত্ব অপ‌রিসীম। কারণ, কলিজায় প্রচুর পরিমাণে জিঙ্ক থাকে। আর এই জিঙ্ক শরীরে টেস্টোস্টেরন হরমোনের মাত্রা বাড়ায়। আরো পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page