কলোসিয়াম ইতিহাস ও এর অজানা তথ্য

কলোসিয়াম


রোমান সভ্যতার অনন্য নিদর্শন হলো কলোসিয়াম। ফাব্রিয়ান এম্ফিথিয়েটর হিনেবে পরিচিত এ কলোসিয়াম রোমে বিলাসী সম্রাটদের নৃশংসতার কালের সাক্ষী। রোম নগরীর কেন্দ্রস্থলে প্যালাটিন পাহাড়ের ঢালে তৈরি ডিম্বাকৃতি এ কলোসিয়ামের দৈর্ঘ্য ৬২০ ফুট,প্রস্থ ৫১৩ ফুট ও উচ্চতা ১৫৭ফুট।এর আয়তন ৬ একর। কলোসিয়ামের ভিতরটা বিভক্ত ছিল ৩ ধাপে
১/ এরিনা
২/ পোডিয়াম
৩/ কেভিয়া


৮০ টি থামের ওপর তিন স্তরে তিন স্থাপত্যশৈলীতে (রডিক,অায়নিক ও অর্নেট) তৈরি এ থিয়েটারের প্রতি স্তরে ৮০ টি প্রবেশদ্বার (Archi way) ছিল।এর দর্শক ধারন ক্ষমতা ৫০ হাজার জন। এত বেশি সংখ্যক প্রবেশ দ্বার থাকায় অল্প সময়েই এ বিশাল থিয়েটার দর্শক পূর্ন কিংবা শূন্য করা সম্ভব ছিল।
শুরু থেকে প্রায় ৪০০ বছর কলোসিয়ামে চলত নির্মম রক্তক্ষয়ী খেলা,যেখানে গ্ল্যাডিয়েটরদের যুদ্ধ করতে হতো অন্য গ্ল্যাডিয়েটর বা অন্য কোন হিংস্র প্রাণির সাথে অথবা এক হিংস্র প্রাণি অন্য হিংস্র প্রাণির সাথে। দুইজনের যুদ্ধে একজনের মৃত্যুর মধ্য দিয়েই খেলা শেষ হতো। এখানে কোন অপরাধী কে শাস্তি দেয়া হতো হয়তো কোন ট্রাপডোর দিয়ে নীচে সুড়ঙ্গে ফেলে অথবা কয়েকটি হিংস্র প্রাণীর সামনে উলঙ্গ করে ছেড়ে দিয়ে। গ্ল্যাডিয়েটর রা ছিল দাস,দাগী আসামী বা রোমানদের কাছে পরাভুত যোদ্ধা। এই কলোসিয়াম এখনো কালের সাক্ষী হয়ে ঠিকে আছে যুগ যুগ ধরে।

আরো পড়ুন: পোর্ট অব স্পেন কিন্ত স্পেনের পোর্ট নয়

[the_ad id=”1420″]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page